Rivotril Medicine use . রিভোট্রিল ব্যাবহার করবো কি ভাবে

                             
Rivotril Medicine use . রিভোট্রিল ব্যাবহার করবো কি ভাবে

 

                                       রিভোট্রিল


                                                        ক্লোনাজেপাম ইউএসপি

উপস্থাপনঃরিভোট্রিল® ০.৫ মি. গ্রা. ট্যাবলেট (চতুর্বিভাজনযােগ্য)ঃ প্রতি ট্যাবলেটে আছে ক্রোনাজেপাম । ইউএসপি ০.৫ মি. গ্রা.। রিভোট্রিল® ২ মি. গ্রা. ট্যাবলেট (চতুর্বিভাজনযােগ্য)ঃ প্রতি ট্যাবলেটে আছে ক্লোনাজেপাম ইউএসপি ২ মি. গ্রা.।

নির্দেশনাঃ মৃগীরাোগ, টাইপিক্যাল এবং অ্যাটাইপিক্যাল এবসেনসেস (লিনক্স সিনড্রম), প্রাথমিক ও পরবর্তী টনিক ক্লোনিক অংগগ্রহে অন্যান্য ওষুধের সাথে সহায়ক হিসেবে নির্দেশিত । শিশুদের স্বাসম এবং টনিক ক্লোনিক খিচুনির ক্ষেত্রে শুধুমাত্র অন্যান্য ওষুধের সাথে সহায়ক হিসেবে অথবা অন্যান্য ওষুধের কার্যকারীতা যথেষ্ট না হলে ব্যবহার করা যাবে। প্যানিক ডিসঅর্ডার/ নিদারুণ ভয় রােগ/ আকস্মিক ভয় রােগঃ ক্লোনাজেপাম প্যানিক ডিসঅর্ডার-এ নির্দেশিত। পুনঃ পুনঃ আকস্মিক ভীতি হল এ রােগের লক্ষণ এবং এক্ষেত্রে রােগী সর্বদাই আসন্ন ভয় পাবার আশংকায় থাকে। প্যানিক ডিসঅর্ডারে ক্লোনাজেপামের কার্যকারিতা বিভিন্ন ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে প্রমাণিত।

মাত্রা ও প্রয়োগবিধিঃ

সাধারণ মাত্রাঃ রাোগীর ওষুধের প্রতি প্রতিক্রিয়া পর্যবেক্ষণ করে মাত্রা নির্ধারণ করা শ্রেয়। সাধারণত স্বল্পমাত্রায় এর ব্যবহার শুরু করা হয় এবং ইপ্সিত ফল না পাওয়া পর্যন্ত ধীরে ধীরে মাত্রা নির্দেশ বৃদ্ধি করতে হয়।


মৃগীরাোগে মাত্রাঃ


  • বয়স  ১০ বছর বয়স পর্যন্ত (দৈহিক ওজন ৩০ কেজি। এর মধ্যে) দৈনিক প্রাথমিক মাত্রা ০.০১-০.০৩ মি.গ্রা./কেজি (দিনে ২-৩ বার বিভক্ত মাত্রায়)  পরবর্তী দৈনিক। | দৈনিক সর্বোচ্চ। নিয়িন্ত্রিত মাত্রা মাত্রা ০.১ মি.গ্রা./কেজি | ০.২ মি.গ্রা./কেজি
  • বয়স ১০-১৬ বছর   ১ -১.৫ মি.গ্রা. । (দিনে ২-৩ বার। বিভক্ত মাত্রায়)
     
  • প্রাপ্ত বয়স্ক মাত্রা ০.০১-০.০৩ মি.গ্রা./কেজি ১-১.৫ মি.গ্রা. । (দিনে ২-৩ বার। বিভক্ত মাত্রায়)  ৩-৬ মি.গ্রা.  সর্বোচ্চ দৈনিক ২০ মি.গ্রা.




বিশেষ মাত্রা নির্দেশনাঃ

 প্রয়ােজনে বিশেষ ক্ষেত্রে অন্যান্য মৃগীরােগ রােধী ওষুধের সাথে ক্লোনাজেপাম ব্যবহার করা। যেতে পারে। সেক্ষেত্রে প্রত্যেকের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে ইঙ্গিত ফল পাওয়া সম্ভব। অন্যান্য মৃগী রােগরােধী ওষুধের মতই রিভােট্রিল® সেবন তাৎক্ষনিকভাবে বন্ধ করা উচিত নয়। ধীরে ধীরে এর সেবন মাত্রা কমিয়ে আনতে হবে। প্যানিক ডিসঅর্ডারে মাত্রাঃ সাধারণত ০.২৫ মি. গ্রা. করে দৈনিক ২ বার (মােট ০.৫ মি.গ্রা.) রিভােট্রিলষ্ট সেবন শুরু করতে হয়। পরবর্তী প্রতি ৩-৫ দিন পরপর দৈনিক মাত্রা ১ মি. গ্রা. বৃদ্ধি করা শ্রেয়। প্যানিক ডিসঅর্ডারে রিভােট্রিল® সাধারণত দৈনিক ২ মি. গ্রা. (১ মি. গ্রা. করে দুইবারে-বিভক্ত মাত্রায়) সেবন করা যেতে পারে। ওষুধ সেবন বন্ধ করার ক্ষেত্রেও ধীরে ধীরে ০.২৫ মি.গ্রা. করে ৩ দিন পর পর এর মাত্রা কমিয়ে আনতে হবে। প্যানিক ডিসঅর্ডারে নূন্যতম ১২-২৪ মাস থেকে শুরু করে অনির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত এর ব্যবহার করতে হয়।।

প্রতি-নির্দেশনাঃ

 রিভােট্রিল® এর যেকোন উপাদানের প্রতি অতি সংবেদনশীল রােগী, শ্বসনতন্ত্র ও যকৃতের মারাত্মক কার্যহীন রােগী এবং Sleep Apnoea এর রােগীকে রিভােট্রিল® দেওয়া যাবে না। সতর্কতাঃ নিম্নলিখিত রােগীদের ক্ষেত্রে রিভােট্রিলষ্ট প্রয়ােগের ক্ষেত্রে ব্যবহার মাত্রা সতর্কতার সাথে নির্ণয়। করতে হবে• শ্বাসতন্ত্রের রােগীদের ক্ষেত্রে (বিশেষত ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমােনারী ডিজিজ) • যকৃত ও বৃক্কের রােগী • যারা মৃগী রােগরােধী ওষুধ ও কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের উপর কার্যকরী অন্যান্য ওষুধ ব্যবহার
করছেন। এছাড়া নেশাসক্ত, অ্যালকোহল সেবী ও মায়েসূথেনিয়া গ্রাভিসের রােগীদের রিভােট্রিল® ব্যবহার করা উচিত নয়। নিম্নলিখিত রােগীদের ক্ষেত্রে রিভােট্রিল® অতি সতর্কতার সাথে ব্যবহার করতে হবে• স্পাইনাল ও সেরিব্রাল এটাক্সিয়া • অ্যালকোহলের ও অন্য কোন মৃগী রােগরােধী ওষুধের বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত রােগী • হিপনােটিক, এনালজেসিক, নিউরােলেপটিক ও বিষন্নতার ওষুধ ব্যবহারকারী রােগীদের ক্ষেত্রে। বিরূপ প্রতিক্রিয়াঃ ৫% বা তার অধিক ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত বিরূপ


প্রতিক্রিয়া সমূহ হতে পারেঃ

ঘুমঘুম ভাব, মাথা ব্যথা, শ্বাসতন্ত্রের প্রদাহ, ইনফ্লুয়েঞ্জা, অবসাদ, বিরক্তি ভাব, অনিদ্রা, শ্বাসকষ্ট, ভারসাম্যহীনতা, বমিবমি ভাব, সমন্বয়হীনতা, উদভ্রান্ত ভাব, সাইনুসাইটিস, মনযােগহীনতা।



গর্ভবতী ও দুগ্ধদাত্রী মায়েদের ক্ষেত্রেঃ

গর্ভাবস্থায় রিভােট্রিল® ব্যবহার করা ছাড়া অন্য কোন গত্যন্তর না থাকলেই কেবল এটি ব্যবহার করা যেতে পারে। গর্ভাবস্থায় শেষ তিনমাসের মধ্যে অথবা প্রসব ব্যথাকালীন সময়ে রিভােট্রিল® এর উচ্চমাত্রা ব্যবহার করলে গর্ভজাত শিশুর অনিয়মিত হৃদস্পন্দন। এবং নবজাতকের হাইপােথারমিয়া, হাইপােটোনিয়া, শ্বাসতন্ত্রের অক্ষমতা ও ক্ষুধামন্দা ঘটে। একটি কথা মনে রাখতে হবে যে গর্ভাবস্থায় এর ব্যবহারে এবং যে কোন রােগীর ক্ষেত্রে হঠাৎ করে এর প্রয়ােগ বন্ধ করলে মৃগীর আক্রমণ বাড়িয়ে দিতে পারে। রিভােট্রিলষ্ট যেহেতু স্বল্পমাত্রায় দুগ্ধদাত্রী মায়ের দুধে নিঃসরিত হয়, সেহেতু দুগ্ধদাত্রী মায়ের রিভােট্রিলষ্ট সেবন করা উচিত নয়। যদি দুগ্ধদাত্রী মায়ের রিভােট্রিল® ব্যবহার ব্যতীত অন্য কোন গত্যন্তর না থাকে সেক্ষেত্রে দুগ্ধদাত্রী মায়েদের সন্তানকে দুগ্ধদান বন্ধ রাখতে হবে।

ফার্মাকোকাইনেটিক্সঃ শােষণঃ ক্লোনাজেপাম সেবনের পর খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দেহে প্রায় সম্পূর্নরূপে শােষিত হয়। ১-৪ ঘণ্টার মাঝেই এটি রক্তে সর্বোচ্চ ঘনত্বে পৌছে যায়। ক্লোনাজেপামের বায়ােএভেইলেবিলিটি বা রক্তে উপস্থিতির পরিমাণ রােগীভেদে শতকরা ৯০ ভাগ। প্যানিক এটাকের সংখ্যা ফলপ্রসূভাবে কমাতে ক্লোনাজেপামের কার্যকর ঘনত্ব ২০ ন্যানােগ্রাম/মি.লি.। বিপাকঃ ক্লোনাজেপাম বিপাকের ফলে একাধিক উৎপাদে পরিণত হয়। মূত্রে এ সকল উৎপাদের উপস্থিতি পাওয়া যায়। বর্জনঃ । ক্লোনাজেপামের বর্জনের অর্ধায়ুকাল ৩০-৪০ ঘণ্টা এবং প্লাজমা ক্লিয়ারেন্স ৫৫ মিলি লিটার/মিনিট। ৫০-৭০ ভাগ ক্লোনাজেপাম মূত্রের মাধ্যমে এবং ১০-৩০ ভাগ ক্লোনাজেপাম মলের মাধ্যমে বর্জিত হয়।

 বিপনন পরবর্তী বিরূপ প্রতিক্রিয়াঃ 

 
বেনজোডায়াজেপিন ব্যবহারের ফলে এলার্জি এবং খুব অল্প কিছু ক্ষেত্রে অ্যানাফাইল্যাক্সিস হওয়ার নজির পাওয়া গিয়েছে। কিছু বাচ্চাদের ক্ষেত্রে বিভিন্নভাবে বয়ঃসন্ধিকালের পূর্বেই সেকেন্ডারি সেক্স বৈশিষ্ট প্রকাশ পাওয়ার রিপাের্ট পাওয়া গিয়েছে। এছাড়া স্নায়ুবিক বৈকল্য এবং মনােরােগ বিষয়ক কিছু সমস্যা হতে পারে। তবে স্নায়ুবিক সমস্যাসমুহ কিছুদিন ওষুধ সেবন করার পর কেটে যেতে পারে। দুর্লভ কিছু ক্ষেত্রে মাথা ব্যথা, যৌনাকাঙ্ক্ষা কমে যাওয়ার ঘটনা পরিলক্ষিত হয়। বেনজোডায়াজেপিন ব্যবহারের ফলে অনেক সময় এন্টারােগ্রেটেড অ্যামনেশিয়া পরিলক্ষিত হতে পারে। এই জাতীয় এন্টারােগ্রেটেড অ্যামনেশিয়ার রােগীরা অস্বাভাবিক ব্যবহার প্রকাশ করে। এছাড়াও চোখের ব্যধি, আন্ত্রিক ব্যধি, শ্বসনতন্ত্রের সমস্যা, হৃদরােগ, চর্মরােগ, কানেকটিভ টিস্যু সংক্রান্ত ব্যধির কিছু রিপাের্ট পাওয়া গিয়েছে। শিশু এবং বাচ্চাদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত মাত্রায় লালারস নিঃসৃত হতে পারে।।

যানবাহন চালানাে ও যন্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্কতাঃ

ক্লোনাজেপাম সেবনের ফলে যানবাহন চালানাে ও যন্ত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে অসুবিধার সৃষ্টি হতে পারে। তাই ক্লোনাজেপাম সেবন করার প্রথম কিছুদিন যানবাহন চালানাে ও যন্ত্র ব্যবহার পরিহার করা উচিত।

সংরক্ষণঃ

প্যাকেটের গায়ে লেখা মেয়াদোত্তীর্ন তারিখের পর এই ওষুধ ব্যবহার করা উচিত নয়। রিভােট্রিল® ট্যাবলেট শুষ্ক স্থানে, ৩০° সে. তাপমাত্রার নীচে, আললা থেকে দূরে রাখতে হবে। সরবরাহঃ প্রতিটি বাক্সে আছে রিভােট্রিল® ০.৫ মি.গ্রা. এর ৮০টি ট্যাবলেট (প্রতিটি চতুর্বিভাজনযােগ্য)। প্রতিটি বাক্সে আছে রিভােট্রিল® ২ মি.গ্রা. এর ৬০টি ট্যাবলেট (প্রতিটি চতুর্বিভাজনযােগ্য)। সকল প্রকার ওষুধ শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন। বিস্তারিত তথ্যের জন্য ইংরেজী অংশ পড়ুন।

® রেজিস্টার্ড ট্রেডমার্ক


RADVANT PHARMACEUTICALS এফ. হফম্যান-লা রােশ লিমিটেড, সুইজারল্যান্ড প্রদত্ত লাইসেন্সের অধীনে রেডিয়েন্ট ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড বি-৩৪ ও ৪৬, বিসিক শিল্প এলাকা টঙ্গী, গাজীপুর, বাংলাদেশ।

*

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন